মেনু নির্বাচন করুন

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

বর্তমানে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ধর্মীয় এবং আর্থ্ সামাজিক উন্নয়নে বিভিন্ন ধরণের কার্য্‌ক্রম গ্রহন করেছে। মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের আওতায় সিরাজগঞ্জ জেলায় ৬৩৬ টি প্রাকপ্রাথমিক, ৭৯৩ টি কোরআনশিক্ষা ও ১২টি বয়স্ক শিক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে । বিগত ৩ বছরে ৫৫,০০০ জন শিশুকে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা, ৬৫০০০ জন শিক্ষার্থীকে কোরআন শিক্ষা এবং ৯০০জন বয়স্ক-শিক্ষাথীকে ধর্মীয় ও নৈতিকতা বিষয়ক শিক্ষা প্রদান করা হয়েছে। মানুষের মধ্যে নৈতিকতা ও ইসলামিক মূল্যবোধের বিকাশ সাধন ও ইসলামের প্রচার প্রসারের লক্ষ্যে বিগত  বছরসমূহে  সর্বমোট ৭১৮টি টাইটেলের ৪১৮৭০ টি বই বিপনন করা হয়েছে। ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ/ ইমাম সাহেবগণ তৃণমূল পর্যায়ের জনগণের সবচেয়ে নিকটতম ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে গণ্য হয়ে থাকেন। সমাজের নৈতিক ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন লক্ষ্যে ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমীর মাধ্যমে তাদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। বিগত তিন বছরে ১৮৭জনকে ইমাম প্রশিক্ষণের জন্য মনোনীত করা হয়েছে। স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত শিশু-কিশোরদের নৈতিকতা উন্নয়নের জন্য ২৮ টি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। গত ৩ বছরে সর্বমোট ৬৬ টি মসজিদ পাঠাগার স্থাপন করা হয়েছে। বিগত ০৩ বছরে মোট ১৪,৯৭,৩০০/-টাকা যাকাত সংগ্রহ করা হয়েছে এবং ৩০০ জনকে যাকাত প্রদান করা হয়েছে। ইমাম মুয়াজ্জিন কল্যান ট্রাষ্টে মাধ্যমে ২১৬ জনকে আর্থিক সাহার্য্য প্রদান এবং ৭০জনকে সুদমুক্ত ঋণ প্রদান করা হয়েছে।